1. »
  2. বাংলাদেশ

দুর্নীতির আসামিরা মাটির নিচে থাকলেও খুঁজে বের করতে হবে: হাইকোর্ট

রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৮:৫৯ পিএম | আপডেট: রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৮:৫৯ পিএম

দুর্নীতির আসামিরা মাটির নিচে থাকলেও খুঁজে বের করতে হবে: হাইকোর্ট

ব্যাংকের টাকা আত্মসাতের মামলায় জামিন আবেদনের শুনানিতে হাইকোর্ট বলেছেন, ‘যেকোনো মূল্যে ব্যাংকের আত্মসাৎ হওয়া টাকা উদ্ধার করতে হবে। প্রয়োজনে আসামিদের সম্পত্তি বিক্রি করে ব্যাংকের টাকা আদায় করতে হবে। এদের কোনো ক্ষমা নেই। দুর্নীতি খুনের চেয়েও মারাত্মক অপরাধ। দুর্নীতি মামলার আসামিরা মাটির নিচে থাকলেও তাদের খুঁজে বের করতে হবে। কারণ ব্যাংকের অর্থ জনগণের সম্পদ।’

ভুয়া বিলের মাধ্যমে ঢাকা ব্যাংকের ধানমন্ডি শাখা থেকে প্রায় ২২ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় ওই শাখার ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ইনচার্জ মো. আমিনুল ইসলামের জামিন শুনানিতে এসব কথা বলেন হাইকোর্ট। এছাড়া আমিনুল ইসলামের জামিন প্রশ্নে জারি করা রুল খারিজ করে দেন আদালত।

রোববার (১৫ ডিসেম্বর) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলম সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ এ রায় দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন- ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হেলেনা বেগম চায়না। দুদকের পক্ষে ছিলেন- আইনজীবী মোহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন ভূঁইয়া। আর আসামিপক্ষে ছিলেন- আইনজীবী হোসাইন মোহাম্মদ ইসলাম।

এর আগে গত ১৬ জুলাই তাকে কেন জামিন দেওয়া হবে না, তা জানাতে দুই সপ্তাহের রুল দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক বলেন, ‘আদালত আমিনুল ইসলামকে জামিন দেননি। তার জামিন প্রশ্নে জারি করা রুল খারিজ করে দিয়েছেন।’

জানা গেছে, আসামিরা একে অন্যের যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার জাল নথি তৈরি করে ভুয়া রফতানি দেখিয়ে ২৬টি রফতানি বিল ঢাকা ব্যাংকের ধানমন্ডি শাখায় জমা দেন। পরে তারা ১৭টি বিলের বিপরীতে ২৬ কোটি ৮৫ লাখ ৯৮ হাজার ১২৬ টাকা উত্তোলন করেন।

এর মধ্যে তিনটি বিলের ও চতুর্থ বিলের আংশিক মূল্যসহ পাঁচ কোটি ৬১ লাখ ১০ হাজার টাকা ব্যাংকে ফেরত দেন। বাকি ১৪টি বিলের মূল্য ২১ কোটি ২৪ লাখ ৯১ হাজার ৪৭১ টাকা ফেরত না দিয়ে আত্মসাৎ করেন। পরে দুদকের সহকারী পরিচালক মো. ইকবাল হোসেন সাত জনকে আসামি করে ধানমন্ডি থানায় ২০১৮ সালের ২৩ ডিসেম্বর মামলা দায়ের করেন। মামলাটি ঢাকার মুখ্য মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তদন্ত পর্যায়ে রয়েছে।

এ মামলার অপর ছয় আসামি হলেন— সাইমেক্স লেদার প্রাইভেট লিমিটেডের চেয়ারম্যান তালহা শাহরিয়ার আইয়ুব (টি এস আইয়ুব), তার স্ত্রী পরিচালক তানিয়া রহমান, ঢাকা ব্যাংকের এভিপি ও সিপিসি সুলতানা ফাহমিদা, মেসার্স এস অ্যান্ড এস এজেন্সির মালিক বিভূতি ভূষণ বালা, মেসার্স জামান এন্টারপ্রাইজের মালিক শেখ আসাদুজ্জামান মিন্টু এবং মেসার্স সাদাত এন্টারপ্রাইজের মালিক মো. আমিনুল ইসলাম।

এর মধ্যে গত ২১ মার্চ সাইমেক্স লেদারের চেয়ারম্যান টি এস আইয়ুব ও পরিচালক তানিয়া রহমানকে জামিন দেয় ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। জামিনের বিরুদ্ধে দুদক রিভিশন আবেদন করলে গত ৯ ডিসেম্বর ঢাকার বিশেষ জজ আদালত তাদের জামিন বাতিল করে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন।

হাইকোর্ট বলেছেন, ‘এই দুইজনকে জামিন দেয়া ঠিক হয়নি ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের।’

আর্কাইভস সংবাদ

আ.লীগের জন্ম মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে: শেখ হাসিনা
আ.লীগের জন্ম মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে: শেখ হাসিনা
দুর্নীতির আসামিরা মাটির নিচে থাকলেও খুঁজে বের করতে হবে: হাইকোর্ট
দুর্নীতির আসামিরা মাটির নিচে থাকলেও খুঁজে বের করতে হবে: হাইকোর্ট
কেরানীগঞ্জে আগুন: দগ্ধ হয়ে আরও ৩ জনের মৃত্যু
কেরানীগঞ্জে আগুন: দগ্ধ হয়ে আরও ৩ জনের মৃত্যু
বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে ‘পকেট মাঙ্কি’ পরিবারে নতুন ২ অতিথি
বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে ‘পকেট মাঙ্কি’ পরিবারে নতুন ২ অতিথি
প্রথম ধাপে ১০ হাজার ৭৮৯ রাজাকারের তালিকা প্রকাশ
প্রথম ধাপে ১০ হাজার ৭৮৯ রাজাকারের তালিকা প্রকাশ
মহান বিজয় দিবসে আ.লীগের কর্মসূচি
মহান বিজয় দিবসে আ.লীগের কর্মসূচি
দ্বিতীয় দিনের বিক্ষোভে উত্তাল পশ্চিমবঙ্গ
দ্বিতীয় দিনের বিক্ষোভে উত্তাল পশ্চিমবঙ্গ
তরুণ সংগীতশিল্পী পৃথ্বী রাজ আর নেই
তরুণ সংগীতশিল্পী পৃথ্বী রাজ আর নেই
এবার চাঁদপুরে আযহারীর মাহফিল বন্ধ
এবার চাঁদপুরে আযহারীর মাহফিল বন্ধ
কীর্তনখোলায় লঞ্চের সঙ্গে সংঘর্ষে ডুবে গেছে কার্গো
কীর্তনখোলায় লঞ্চের সঙ্গে সংঘর্ষে ডুবে গেছে কার্গো
আন্তর্জাতিক চাপে মিয়ানমার
আন্তর্জাতিক চাপে মিয়ানমার
রাজাকারের তালিকা প্রকাশ রোববার
রাজাকারের তালিকা প্রকাশ রোববার
সেনাপ্রধানকে নিয়ে আদালতের রায়ে যা বললেন ইমরান
সেনাপ্রধানকে নিয়ে আদালতের রায়ে যা বললেন ইমরান
বুয়েটের ৯ ছাত্রকে হল থেকে আজীবন বহিষ্কার
বুয়েটের ৯ ছাত্রকে হল থেকে আজীবন বহিষ্কার
বিদ্যুতের দাম ২৩ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব পিডিবির
বিদ্যুতের দাম ২৩ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব পিডিবির
১০ বছর নাগাদ যুক্তরাজ্য ভেঙে যেতে পারে: জরিপ
১০ বছর নাগাদ যুক্তরাজ্য ভেঙে যেতে পারে: জরিপ
কম দামে পেঁয়াজ কিনে বেশি দামে বিক্রি করায় জরিমানা
কম দামে পেঁয়াজ কিনে বেশি দামে বিক্রি করায় জরিমানা
বাংলাদেশ ব্যাংকের নেতৃত্বে ব্যাংকিং কমিশন গঠন ফলদায়ক হবে না: টিআইবি
বাংলাদেশ ব্যাংকের নেতৃত্বে ব্যাংকিং কমিশন গঠন ফলদায়ক হবে না: টিআইবি
ট্রাম্পের অভিশংসন তদন্ত: আগামী সপ্তাহ থেকে গণশুনানি শুরুর ঘোষণা
ট্রাম্পের অভিশংসন তদন্ত: আগামী সপ্তাহ থেকে গণশুনানি শুরুর ঘোষণা
সিপিইসি নিয়ে মার্কিন উদ্বেগ নাকচ করল পাকিস্তান
সিপিইসি নিয়ে মার্কিন উদ্বেগ নাকচ করল পাকিস্তান
জাবি ছাত্রলীগ সম্পাদকের পদত্যাগ
জাবি ছাত্রলীগ সম্পাদকের পদত্যাগ
যোগদানের ৪ দিনের মাথায় টাকাসহ আটক সাবরেজিস্ট্রার
যোগদানের ৪ দিনের মাথায় টাকাসহ আটক সাবরেজিস্ট্রার
প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে ‘বুলবুল’
প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে ‘বুলবুল’
ক্রেডিটকার্ড ব্যবহারকারীদের সুখবর দিল বাংলাদেশ ব্যাংক
ক্রেডিটকার্ড ব্যবহারকারীদের সুখবর দিল বাংলাদেশ ব্যাংক
প্রথম আলো সম্পাদকের বিরুদ্ধে রাহাতের বাবার মামলা
প্রথম আলো সম্পাদকের বিরুদ্ধে রাহাতের বাবার মামলা
মামলা মোকাবেলা করতে জাতিসংঘ আদালতে যাচ্ছেন সুচি
মামলা মোকাবেলা করতে জাতিসংঘ আদালতে যাচ্ছেন সুচি
প্রধানমন্ত্রীকে পেয়ে ওরা ভালো খেলবে ভেবেছিলাম: সৌরভ
প্রধানমন্ত্রীকে পেয়ে ওরা ভালো খেলবে ভেবেছিলাম: সৌরভ
পরিচালক ফাহমির সঙ্গে মিথিলার অন্তরঙ্গ ছবি ভাইরাল
পরিচালক ফাহমির সঙ্গে মিথিলার অন্তরঙ্গ ছবি ভাইরাল
দুইদিনে ২৭ ফিলিস্তিনি আটক করল ইসরাইলি সেনারা
দুইদিনে ২৭ ফিলিস্তিনি আটক করল ইসরাইলি সেনারা
ট্রেন চালকের দক্ষতায় বাঁচলো শত প্রাণ
ট্রেন চালকের দক্ষতায় বাঁচলো শত প্রাণ